Tuesday , 4 August 2020

অ্যান্ড্রয়েড ফোনে ১০টি অ্যাপ হ্যাকারদের জায়গা করে দিচ্ছে

গুগল প্লেস্টোর-এর ব্যান করা এই ১০টি জোকার ম্যালওয়ার যুক্ত অ্যাপ্লিকেশনের নাম জানুন আর শিগগিরই ডিলিট করুন—

com.imagecompress.android

com.hmvoice.friendsms

com.cherry.message.sendsms

com.file.recovefiles

com.peason.lovinglovemessage

com.LPlocker.lockapps

com.remindme.alram

com.contact.withme.texts

com.relax.relaxation.androidsms

com.training.memorygame

এত দিন ধরে স্মার্টফোন ব্যবহার করছেন। অ্যান্ড্রয়েড ব্যবহার করছেন। স্মার্টফোনের ম্যালওয়ারের বিষয়ে অল্পবিস্তর ধারণা নিশ্চয়ই রয়েছে সকলের। আর ম্যালওয়ার জোকার (Joker malware)? জানেন সেটি কী বস্তু? এক কথায় ভয়ংকর! গুগল প্লেস্টোর থেকে মোট ১০টি অ্যাপ্লিকেশনকে সরিয়ে দেওয়া হয়েছে। কারণ এই ১০টি অ্যাপই ফোনের মধ্যে ম্যালওয়ার জোকার ঢুকিয়ে দেয় ব্যবহারকারীর অজান্তেই। ২০১৭ সাল থেকেই গুগল প্লেস্টোরের নজরে ছিল এই ১০টি অ্যাপ। শেষমেশ কঠিন পদক্ষেপ নিয়েছে প্লেস্টোর।

এই জোকার ম্যালওয়ার আসলে কী?

ব্যবহারকারীর কোনো অনুমতি ছাড়াই জোকার ম্যালওয়ার বিভিন্ন ধরনের প্রিমিয়াম সার্ভিসের জন্য সাইন আপ করিয়ে দেয়। এর ফলে বড়োসড়ো বিপদে পড়তে পারেন ঐ অ্যাপ ইউজাররা। নিজের অজান্তেই দেখবেন অ্যাকাউন্ট থেকে টাকা গায়েব। শুধু তাই নয়, এই অ্যাপগুলো এখনো ফোনে রাখা মানে, আপনি যেচেই সব গোপনীয় তথ্য তুলে দিচ্ছেন হ্যাকারের কাছে। হ্যাকাররা আসলে গুগল প্লে-সার্ভিসের প্রোডাকশন বাইপাস করার মধ্যদিয়ে খুব সহজেই ঢুকে পড়তে পারে আপনার ফোনে। আর এক্ষেত্রে হ্যাকারদের সাহায্য করে ঐ অ্যাপগুলোই।

 

গুগল প্লেস্টোর এই অ্যাপগুলোকে সরালেও, আশঙ্কার বিষয় হচ্ছে ব্যবহারকারীর ফোনে এই অ্যাপগুলো এখনো যদি থাকে, তাহলে সমূহ বিপদ। কারণ গুগল প্লেস্টোর সরিয়ে দিয়েছে, আপনি এখনো সরাননি। তাই কাজ করবে অ্যাপগুলো। তাই কিছু না ভেবেই আগে ফোন থেকে যত দ্রুত সম্ভব ডিলিট করে ফেলুন অ্যাপগুলো। চেক পয়েন্ট রিসার্চারেরা জানাচ্ছেন, এখনো ফোন থেকে ব্যবহারকারীরা অ্যাপগুলোকে না সরালে বিপদ হতে পারে বড়োসড়ো। কারণ তাদের বক্তব্য, এই ধরনের জোকার ম্যালওয়ার (Joker malware) যুক্ত অ্যাপ্লিকেশনগুলো খুঁজে বের করা অত্যন্ত কষ্টকর। এমনকি অ্যাপ্লিকেশনগুলো আবারও গুগল প্লেস্টোরে ফিরে আসতে পারে বলে আশঙ্কা তাদের।

গুগল প্লেস্টোর -এ সিকিউরিটি ফিচার থাকা সত্ত্বেও এই অ্যাপ্লিকেশনগুলি কে ধরা যায় না। খুব সমপ্রতি একটি রিপোর্টে গুগল জানিয়েছে, ইতিমধ্যেই তারা প্লেস্টোর থেকে ১,৭০০ টি ব্রেড অ্যাপ্লিকেশন সরিয়ে দিয়েছে। এই ব্রেড অ্যাপ্লিকেশনগুলিও ব্যবহারকারীর ফোনে জোকার ম্যালওয়ার প্রবেশ করানোর ক্ষেত্রে ব্যবহূত হয়।

Comments

Check Also

এসির বিস্ফোরণ যেসব কারণে ঘটে

এয়ার কন্ডিশনার বা এসি। বর্তমান সময়ের অত্যন্ত প্রয়োজনীয় গৃহস্থালী পণ্য। কিন্তু একটু অসচেতনায় এই আরামদায়ক …