শনিবার , ১৫ ডিসেম্বর ২০১৮

বাংলাদেশ প্রস্তুত কাতারকে একাধিক অর্থনৈতিক জোন দিতে

বাংলাদেশ কাতারকে এক বা একাধিক বিশেষ অর্থনৈতিক অঞ্চল (স্পেশাল ইকোনমিক জোন-এসইজেড) দিতে প্রস্তুত বলে জানিয়েছেন পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী মো. শাহরিয়ার আলম। গত শনিবার কাতারের রাজধানী দোহায় এক সেমিনারে তিনি এ কথা বলেন।

গতকাল রবিবার পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় জানায়, দোহায় রিট্জ কার্লটন হোটেলে ‘বাংলাদেশে সরাসরি বিদেশি বিনিয়োগ’ শীর্ষক সেমিনারে প্রধান অতিথির বক্তব্য দেন প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম। এ সময় কাতারের বিনিয়োগকারীদের বাংলাদেশে বিনিয়োগ করার আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেন, তারা বাংলাদেশে বিশেষ অর্থনৈতিক অঞ্চল নিজেদের প্রত্যাশা অনুযায়ী পরিচালনা করতে পারবে।

পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী বলেন, ‘দক্ষিণ এশিয়ার মধ্যে সবচেয়ে উদার বিনিয়োগনীতি বাংলাদেশের। এর পাশাপাশি বাজারে প্রবেশাধিকার সুবিধা, প্রশিক্ষণ উপযোগী ও প্রতিযোগী তরুণ কর্মশক্তি ও প্রতিযোগিতামূলক মজুরি সুবিধা কাজে লাগাতে পারে কাতারের বিনিয়োগকারীরা।’ তিনি কাতারের বিনিয়োগকারীদের বাংলাদেশের পুঁজিবাজার, জ্বালানি, টেলিযোগাযোগ ও তথ্য-প্রযুক্তি, পেট্রোকেমিক্যাল, জাহাজ নির্মাণ, কৃষি প্রক্রিয়াজাতকরণ, মানবসম্পদ উন্নয়ন, পানি ও সামুদ্রিক এবং অন্যান্য অবকাঠামো প্রকল্প, হাইটেক নির্মাণ ও মাইক্রোপ্রসেসর খাতে বিনিয়োগের আহ্বান জানান।

কাতার ফিন্যানশিয়াল সেন্টারের (কিউএফসি) সহযোগিতায় বাংলাদেশ ফোরাম ওই সেমিনার আয়োজন করে।

পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশ গত মার্চ মাসে উন্নয়নশীল দেশ হওয়ার সব শর্ত পূরণ করেছে। ২০৪১ সালের মধ্যে বাংলাদেশ উন্নত দেশ হওয়ার পথে আছে। তিনি বাংলাদেশের সম্ভাবনা বিষয়ে বৈশ্বিক বিভিন্ন নীতি গবেষণা প্রতিষ্ঠানের অত্যন্ত ইতিবাচক মন্তব্যগুলোও তুলে ধরেন।

কাতারের ব্যবসায়ী নেতাদের শাহরিয়ার আলম বলেন, বাংলাদেশে বর্তমানে আটটি পুরোপুরি সচল রপ্তানি প্রক্রিয়াকরণ এলাকা (ইপিজেড) রয়েছে।

Comments

Check Also

খুবই লাভজনক মাল্টা চাষ

মেহেরপুর জেলা সদর থেকে ১০ কিলোমিটার দক্ষিণে মোনাখালী গ্রাম। এ গ্রাম পার হয়ে রশিকপুর সড়কের …