Saturday , 6 June 2020

ভোট দেননি প্রায় ৪০ লাখ ভোটার

ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণ সিটির ৫৪ লাখ ৬৬ হাজার ২৮৫ জন ভোটারের মধ্যে ৩৯ লাখ ৯০ হাজার ৪৪৭ জন ভোটার অর্থাত্ প্রায় ৪০ লাখ ভোটার কাউকে ভোট দেননি। মাত্র ১৪ লাখ ৭৫ হাজার ৮৩৮ জন ভোটারের ভোট পেয়েছেন নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বী ১৩ জন মেয়র প্রার্থী। এর মধ্যে আওয়ামী লীগ-বিএনপির চার প্রার্থী ছাড়া বাকী ৯ জনের জামানত বাজেয়াপ্ত হয়েছে। ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিনে (ইভিএম) অনুষ্ঠিত নির্বাচনে কেন্দ্রে কেন্দ্রে অস্বাভাবিক ভোট পড়ার তথ্য পাওয়া গেছে। সর্বনিম্ন ভোট পড়েছে ১ শতাংশ।

ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণ সিটির কেন্দ্রেভিত্তিক ফলাফল বিশ্লেষণ করে দেখা গেছে, উত্তর সিটিতে ৫০টি কেন্দ্রে শতাংশের ওপরে ভোট পড়েছে। দক্ষিণে এই সংখ্যা ৪৬টি ভোটকেন্দ্রে। ১০ শতাংশের নিচে ভোট পড়েছে উত্তরে ৬০টি ভোটকেন্দ্রে আর দক্ষিণে ২৬টি কেন্দ্রে। উত্তরের একটি কেন্দ্রে সর্বোচ্চ ৭৮ দশমিক ২১ শতাংশ ভোট পড়েছে। সর্বনিম্ন ভোট পড়েছে ১ দশমিক শূন্য শতাংশ। অন্যদিকে দক্ষিণ সিটিতে সর্বোচ্চ ভোট পড়েছে ৭৭ দশমিক ৪৭ শতাংশ। এককেন্দ্রে সর্বনিম্ন ভোট ৪ দশমিক ১৩ শতাংশ।

এ বিষয়ে নির্বাচন কমিশনের (ইসি) সিনিয়র সচিব মো. আলমগীর বলেন, ইভিএমে যা ভোট পড়েছে সেই অনুযায়ী ফল প্রকাশিত হয়েছে। কারণ এখানে অতিরিক্ত ভোট দেওয়ার কোনো সুযোগ নাই। ভোটার কেন্দ্রে না গেলে ভোট দেওয়ার কোনো সুযোগ নাই। নির্বাচন বাতিলের কোনো সুযোগ নাই। নির্বাচন কমিশন গেজেট প্রকাশ করেছে। কেউ যদি চান, আদালত পর্যন্ত যেতে পারেন।

দুই সিটির ৫৪ লাখ ৬৬ হাজার ২৮৫ জন ভোটারের মধ্যে উত্তরে ভোটার ৩০ লাখ ১৩ হাজার ১২৬ জন। এর মধ্যে ভোট দিয়েছেন ৭ লাখ ৬ হাজার ৭৮৮ জন। এ নির্বাচনে ২৫ দশমিক ৩২ শতাংশ ভোট পড়েছে। দক্ষিণের ২৪ লাখ ৫৩ হাজার ১৫৯ জন ভোটারের মধ্যে ভোট দিয়েছেন ৭ লাখ ১৩ হাজার ১২৬ জন। এই সিটিতে গড় ভোট ২৯ দশমিক ০৭ শতাংশ। উত্তর-দক্ষিণ সিটিতে ভোট পড়েছে মাত্র ২৭ দশমিক ১৫ শতাংশ। মাত্র ১৫ এবং ১৭ শতাংশ ভোটারের রায় নিয়ে ঢাকা উত্তরে মো. আতিকুল ইসলাম এবং দক্ষিণে ব্যারিস্টার শেখ ফজলে নূর তাপস মেয়র হয়েছেন। ভোট পড়ে ২৫ দশমিক ৩০ শতাংশ।

ঢাকা উত্তর সিটি ঃ উত্তর সিটির বাইলজুরি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে ১ শতাংশ ভোট পড়েছে। দ্বিতীয় সর্বনিম্ন ৩ দশমিক ০৮ শতাংশ ভোট পড়েছে কাফরুলের শহিদ পুলিশ স্মৃতি উচ্চ বিদ্যালয় কেন্দ্রে। সর্বোচ্চ ভোট পড়েছে ৭৮ দশমিক ২১ শতাংশ উত্তরা আইডিয়াল কলেজ কেন্দ্রে। ঐ কেন্দ্রে আতিক পেয়েছেন ১৬২১ ভোট আর তাবিথ পান মাত্র ১৯ ভোট। উত্তরের ১৩১৮টি ভোটকেন্দ্রের মধ্যে ৩০৬টি ভোটকেন্দ্রে ১০০টিরও কম ভোট পেয়েছেন মাঠের প্রধান বিরোধী দল বিএনপির প্রার্থী তাবিথ আউয়াল। অপরদিকে ৪০টি কেন্দ্রে ১০০টির কম ভোট পেয়েছেন নির্বাচিত মেয়র আওয়ামী লীগের প্রার্থী মো. আতিকুল ইসলাম। কেন্দ্রভিত্তিক ফলাফলে সর্বনিম্ন দুটি ও সর্বোচ্চ ৮৪৯ ভোট পেয়েছেন তাবিথ আউয়াল। আর আতিকুল ইসলাম সর্বনিম্ন ৩৩টি ও সর্বোচ্চ ১ হাজার ৯৯২টি ভোট পেয়েছেন। যে ৩০৬টি কেন্দ্রে বিএনপির প্রার্থী একশ’র কম ভোট পেয়েছেন, সেখানে আওয়ামী লীগের প্রার্থী বিপুল ভোটের ব্যবধানে জয় পেয়েছেন। অপরদিকে আতিকুল ইসলাম যে ৪০টি কেন্দ্রে ১০০টির কম ভোট পেয়েছেন, সেসবের অনেকগুলোতেই তাবিথ আউয়াল বেশি ভোট পেয়েছেন।

ঢাকা দক্ষিণ সিটি ঃ ঢাকা দক্ষিণ সিটির ১১৫০টি ভোটকেন্দ্রের মধ্যে এক কেন্দ্রে সর্বনিম্ন ৪ দশমিক ১৩ শতাংশ ভোট পড়েছে। আবার কোথাও ভোট পড়েছে ৭৭ দশমিক ৭৪ শতাংশ। এ সিটিতে ২৩৪টি ভোটকেন্দ্রে ২০ শতাংশের কম ভোট পড়েছে। ৪৬টি কেন্দ্রে ভোট পড়েছে ৫০ থেকে ৭৭ দশমিক ৪৭ শতাংশ ভোট। প্রার্থীদের কেন্দ্রভিত্তিক ভোট পাওয়ার ক্ষেত্রেও বড়ো ব্যবধান রয়েছে। আওয়ামী লীগের প্রার্থী নবনির্বাচিত মেয়র ব্যারিস্টার শেখ ফজলে নূর তাপস একটি কেন্দ্রে মাত্র ১৬ ভোট পেয়েছেন। আরেকটি কেন্দ্রে সর্বোচ্চ ১ হাজার ৩৭৪ ভোট পেয়েছেন। প্রধান প্রতিপক্ষ বিএনপির পরাজিত প্রার্থী ইশরাক হোসেন এক কেন্দ্রে ১টি মাত্র ভোট, আবার আরেকটি কেন্দ্রে সর্বোচ্চ ৮৪৩টি ভোট পেয়েছেন।

Comments

Check Also

মসজিদে দানের টাকা নিয়ে মারপিটে নিহত ১

নওগাঁর মান্দায় মসজিদে দানের টাকা ঘোষণা দেয়াকে কেন্দ্র করে প্রতিপক্ষের হামলা ও মারপিটে তোফাজ্জল হোসেন …