Monday , 17 February 2020

মরা তিমির পেটে মিললো ১০০ কেজি আবর্জনা !

স্কটিশ আইল্যান্ডের হ্যারিসে ভেসে উঠেছে একটি মৃত তিমি। তার পেট চিরে পাওয়া যায় প্রায় ১০০ কেজি আবর্জনা। স্পেনের মাদ্রিদে চলা জলবায়ু সম্মেলন চলাকালে ‘সমুদ্র দূষণের কবলে পড়ে মারা যাওয়া’ এ তিমি নিয়ে তীব্র সমালোচনা চলছে বিশ্বজুড়ে।

তিমিটির পেট চিরে পাওয়া যায় প্রচুর পরিমাণে জাল, দড়ি, ব্যাগ এবং প্লাস্টিক কাপ। তিমি বিশেষজ্ঞরা জানান, এ পরিমাণে ময়লা পেটে থাকার কারণে তার মৃত্যু হয়েছে কিনা বিষয়টি এখনো বোঝা যাচ্ছে না। কিন্তু তিমির নিথর দেহ উদ্ধার করা সকলের মতে, সমুদ্র দূষণের কারণেই মারা গেছে এই তিমি।

বিষয়টি খুবই দুঃখজনক জানিয়ে স্থানীয় অধিবাসী ড্যান প্যারি বলেন, তিমির পেট থেকে এ পরিমাণে ময়লা পাওয়া প্রমাণ করে আমরা কি পরিমাণে সমুদ্র দূষণ করছি। প্রতিদিন এই সমুদ্র সৈকতে এসে হাঁটি, হাতে থাকে একটি ব্যাগ। সেখানে সমুদ্র সৈকতে পাওয়া ময়লা আবর্জনা সংগ্রহ করে নির্দিষ্ট স্থানে ফেলি। অধিকাংশ দিন আমার পাওয়া ময়লাগুলোর মধ্যে মাছ ধরার জাল বা দড়ি পাই। এই তিমি ময়লা খাওয়ার জন্য মারা গেছে কিনা তা আমি জানি না। কিন্তু এটি নিশ্চিত যে, আমরা এভাবে সমুদ্র দূষণের জন্য দায়ী।

এই তিমির মৃত্যুর কারণ খুঁজে বের করার চেষ্টা করছে স্কটিশ মেরিন এনিমেল স্ট্রান্ডিং স্কিম (এসএমএএসএস) এর সদস্যরা। তাদের ফেসবুক পোস্টে জানানো হয়, এ পরিমাণে ময়লা একটি তিমির পেটে পাওয়া ‘ভয়াবহ অবস্থা’ থেকে কম কিছু নয়। কিন্তু এখনো আমরা নিশ্চিতভাবে জানি না তিমিটি কেন মারা গেছে। সেটি খুঁজে বের করার চেষ্টা করা হচ্ছে। সমুদ্র তটে বেঁচে থাকা প্রাণীগুলোর জন্য এ পরিমাণে আবর্জনা কতটা ক্ষতিকর তা এ ঘটনা থেকে আমরা আরো একবার উপলব্ধি করতে পারি।

Comments

Check Also

নাইজেরিয়ায় ৩০ জনকে ঘুমন্ত অবস্থায় পুড়িয়ে হত্যা

নাইজেরিয়ার বোর্নো প্রদেশের আউনো শহরের একটি মহাসড়কের পাশে ঘুমিয়ে থাকা ৩০ জনকে পুড়িয়ে হত্যা করেছে …