Saturday , 23 March 2019

মাদকাসক্তদের জন্য করণীয় যা

মাদকাসক্তদের যদি বিশেষভাবে যত্ন নেওয়া যায়, তাহলে তারা আবার স্বাভাবিক জীবনে ফিরে আসতে পারে। আর সে জন্য দরকার পরিবারের সবার ভালবাসা, সহায়তা, সঠিক খাদ্যাভ্যাস এবং চিকিৎসা। যারা মাদকাসক্ত তাদের উদ্দেশ্যে বলছি— প্রতিদিন সুষম খাবার গ্রহণ করুন। খাবার তালিকায় ৫০-৫৫ শতাংশ ফ্যাট, ২০ শতাংশ প্রোটিন, উদ্ভিজ্জ তেল, ডেইরি প্রোডাক্ট এবং পর্যাপ্ত শাক, সবজি ও ফলমূল রাখুন।

সবজির মধ্যে ক্রুসিফেরাস ভেজিটেবলস যেমন বাঁধাকপি, ফুলকপি, শালগম, মূলা, ব্রুকলি এগুলোকে প্রাধান্য দিন। এতে প্রচুর ভিটামিন সি, ক্লোরোফিল থাকে, যা বডি থেকে বিষাক্ত পদার্থ বের করে দিয়ে রক্ত পরিষ্কার রাখে এবং ইমিউন সিস্টেমকে বুস্ট করে। উচ্চ আঁশযুক্ত খাবার সবুজ শাক বিশেষ করে ডাটা, সবজি, ফল,শস্য, ব্রাণ, ওটস, ডাল, ফল ও সবজি রাখতে হবে যাতে শরীরে ভিটামিন ও মিনারেলস এর অভাব, রক্তশূন্যতা না হয়।

সাইট্রাস ফ্রুটস বা ভিটামিন সি জাতীয় খাবার যেমন টমেটো, বেরিস, কিউই, ডালিম, বেল, অ্যাভোকাডো, মাল্টা, কমলা, লেবু এগুলো ও খাবার তালিকায় রাখতে হবে। স্ট্রেস ও উদ্বিগ্নতা কমিয়ে মস্তিষ্কের কার্যক্ষমতা বৃদ্ধি করতে সাহায্য করে সাইট্রাস ফ্রুটস। টুনা, স্যামন এসব সামুদ্রিক মাছ এবং ফ্ল্যাক্স সিড, কিডনি বীন, বেরিস, আপেল এগুলোতে ওমেগা ৩ ফ্যাটি অ্যাসিড থাকে। প্রতিদিনের খাদ্য তালিকায় ওমেগা ৩ রাখলে ফুসফুসের উন্নতি সাধন করে, রক্ত চলাচল এবং শ্বাসক্রিয়া স্বাভাবিক রাখে।

সময়মত খাবার খেতে হবে। চিনি ও মিষ্টি খাওয়া বর্জন করুন। এগুলো ক্ষুধামন্দা তৈরি করে। ক্যাফেইন জাতীয় খাবার যেমন চা কফি খাওয়া যাবে না। এগুলো মাদক সেবনের আকাঙ্ক্ষা বাড়িয়ে দেয়। প্রচুর পানি পান করতে হবে। মাল্টিভিটামিন গ্রহণ করতে হবে ডাক্তার বা পুষ্টিবিদের পরামর্শে। প্রতিদিন হালকা ব্যায়াম করতে হবে। রেগুলার ব্যায়াম করলে মাদকাসক্তি কমে আসতে থাকে। এবং অবশ্যই পর্যাপ্ত বিশ্রাম নিতে হবে।

Comments

Check Also

ছিনতাইকারী আটক গুলিবিদ্ধ হয়ে চিকিৎসা নিতে এসে !

রাজধানীর গুলিস্তানে পার্কের পাশ দিয়ে হেঁটে যাচ্ছিলেন সুজা উদ্দিন তালুকদার (৩৮)। এসময় তিনি ছিনতাইকারীর কবলে …