Friday , 15 November 2019

শক্তিশালী ভূমিকম্প ইরানে, নিহত ৪, আহত ৭০

ইরানের উত্তর-পশ্চিমাঞ্চলের পূর্ব আজারবাইজান প্রদেশে শক্তিশালী ভূমিকম্প আঘাত হেনেছে। এতে এখন পর্যন্ত অন্তত ৪ জন নিহত ও ৭০ জন আহতের খবর জানা গেছে। যুক্তরাষ্ট্রের ভূতাত্ত্বিক জরিপ সংস্থা (ইউএসজিসি) আশঙ্কা করছে এ ভূমিকম্পে একশ’ থেকে এক হাজার মানুষের প্রাণহানি হতে পারে।

শুক্রবার (০৮ নভেম্বর) ভোররাতের দিকে তাবরিজ শহরের ১২০ কিলোমিটার দক্ষিণ-পূর্বাঞ্চলে এ ভূমিকম্প হয়। ইরানের রাষ্ট্রীয় টেলিভিশনের বরাত দিয়ে আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যম এ তথ্য জানায়।

খবরে বলা হয়, রিখটার স্কেলে ভূমিকম্পের মাত্রা ছিল ৫.৯। প্রায় ২ কোটি মানুষ এ ভূকম্পন অনুভব করে বলে ইউরোপীয়-ভূমধ্য অঞ্চল বিষয়ক আবহাওয়া কেন্দ্র ইএমএসসি জানায়। ভূপৃষ্ঠ থেকে মাত্র ১০ কিলোমিটার গভীরে ভূমিকম্পটির উৎসস্থল হওয়ায় বেশি মাত্রায় এর প্রভাব পড়ে।

একই কথা জানায় ইরানের রাষ্ট্রীয় সংবাদ সংস্থা ইরনা। তারা জানায়, ভূমিকম্পটিতে তুলনামূলক বেশি কম্পন অনুভূত হয়। বেশকিছু শহরে এর প্রভাব পড়ে। রাতের অন্ধকারে আতঙ্কিত মানুষজন ঘরবাড়ি থেকে ছুটে বেরিয়ে আসে।

ভৌগোলিকভাবে ইরান দুটি বড় টেকটোনিক প্লেটের সংযোগস্থলের ওপর অবস্থিত। ফলে প্রায়ই এখানে ভূকম্পন হয়।

গত কয়েক দশকে অনেকগুলো বড় ভূমিকম্পের মুখোমুখি হয়েছে ইরান। এর মধ্যে ২০০৩ সালে বাম শহরে ভয়াবহ এক ভূমিকম্পে অন্তত ৩১ হাজার মানুষের প্রাণহানি ঘটে। এর আগ ১৯৯০ সালে উত্তর ইরানে ৭.৪ মাত্রার প্রাণঘাতী আরেক ভূমিকম্পে প্রায় ৪০ হাজার মানুষ নিহত ও ৩ লাখ আহত হয়। সেবারে ৫ লাখ মানুষ ঘরবাড়ি হারায়। ডজনখানেক শহর ও প্রায় ২ হাজার গ্রাম ধ্বংসস্তূপে ভরে যায়।

এছাড়া ২০০৫ ও ২০১২ সালে আরও দুই ভূমিকম্পে যথক্রমে ৬ শ’ ও ৩ শ’ মানুষের প্রাণহানি হয়।

Comments

Check Also

অস্ট্রেলিয়া থেকে বাংলাদেশে এলো সোয়া দুইশ গরু

উড়োজাহাজে করে অস্ট্রেলিয়া থেকে বাংলাদেশে এসেছে উন্নতজাতের ২২৫টি গরু। তবে গরু এলেও অস্ট্রেলিয়ায় ঢুকতে পারেননি …