বুধবার , ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮

স্মার্ট স্পিকার

প্রযুক্তি ব্যবহারের সঙ্গে সঙ্গে আমাদের জীবন যাত্রার মান উন্নত হচ্ছে। স্মার্ট ডিভাইস ব্যবহারের প্রবণতা দিন দিন বেড়েই চলেছে। আমাদের দৈনন্দিন কাজকে আরো সহজ করতে এই ডিভাইসগুলো যেমন ভূমিকা রাখছে ঠিক তেমনি এগুলো ব্যবহারে সহজ ও নির্ভরযোগ্য হওয়াতে জনপ্রিয়ও হচ্ছে। স্মার্টফোন, স্মার্ট টেলিভিশন, স্মার্ট সিকিউরিটি ও স্মার্ট ডিভাইস এগুলোর মধ্যে অন্যতম। আমাদের এবারের আয়োজন স্মার্ট স্পিকার নিয়ে।
স্মার্ট স্পিকার আপনার নতুন সহকারী
আমাদের বসবাসরত ঘর-বাড়িগুলো আরো স্মার্ট হয়ে উঠেছে। অ্যালেক্সা, গুগল, সিরি স্মার্ট স্পিকারগুলো দৈনন্দিন কাজের সহকারী হিসেবে কাজ করছে। সময় সেট করা, শিশুদের শিক্ষাদানে সহায়তা করা, মিউজিক প্লে করাসহ আমাদের অনেক কাজে সহকারী হিসেবে কাজ করছে এই স্মার্ট স্পিকারগুলো। আপনি যদি ভয়েসের সহায়তার কোনো প্লাটফর্মের কথা বিবেচনা করে থাকেন তাহলে আপনি এগুলোকে বাছাই করতে পারেন। এর আগে যদি আপনি কোনো সহকারীর সাহায্য নিতে গিয়ে ব্যর্থ হয়ে থাকেন এবং আপনি আপনার একধিক কক্ষে স্মার্ট সহায়তা চাচ্ছেন তাহলে একটি মাত্র ডিভাইস দিয়েই তা সম্ভব। আপনি এই ডিভাইসের প্রতি আস্থা রাখতে পারেন। অন্যান্য ডিভাইসগুলোর পাশাপাশি স্মার্ট স্পিকার আপনার চাহিদা পূরণে যথার্থই কাজ করবে। এক কথায় বলা যায় এটি আপনার বাসার জন্য উপযুক্ত একটি ডিভাইস। ভয়েস সহায়ক ডিভাইসের উদ্ভব মূলত দুইটি স্থান থেকে হয়েছে কিন্তু এখন তারা একত্রিত হয়ে কাজ করছে। আমাজনের অ্যালেক্সা ইকো ভয়েস কন্ট্রোল ডিভাইসের ধারণা চালু করেছে। পরবর্তীতে এটিকে আমাজন ফায়ার টিভিতে যুক্ত করা হয়েছে এবং অন্যান্য কোম্পানিও এটিকে বিভিন্ন ডিভাইসের সঙ্গে যুক্ত করতে শুরু করেছে। আমাজনের এই প্রযুক্তিটি প্রথমে স্মার্ট স্পিকারে যুক্ত হয়েছে এবং পরর্তীতে বিভিন্ন কোম্পানি তাদের বিভিন্ন ধরনের ডিভাইসের সঙ্গে এই প্রযুক্তি যুক্ত করেছে। বর্তমানে ঘরে থাকা লাইট, ফ্যান এমনকি রুমের তাপমাত্রাও জানা যায় এই প্রযুক্তি ব্যবহার করে। অন্যদিকে অ্যাপলের তাদের সহকারী তাদের অ্যান্ড্রয়েড ও আইফোনে প্রথম চালু করে ভয়েস ডাবিং ফিচার। পরবর্তীতে এই প্রযুক্তির মাধ্যমে কল করা, মিউজিক প্লে করা, এসএমএস এর রিপ্লে দেয়া, বাসা/ অফিস/ গাড়ির তাপমাত্র জানার সুবিধা চালু করে। গুগলের তুলনায় অ্যাপল এই প্রযুক্তি ব্যবহার করে স্মার্ট টেলিভিশন ও স্মার্ট স্পিকারের মাধ্যমে মানুষের বাসা পর্যন্ত পৌঁছেছে।
গুগল সহকারী, সিরি ও মাইক্রোসফটের করটানার চেয়ে বর্তমানে আমরা অ্যালেক্সাকে বেশি পছন্দ করি। যদি আমরা কোনো ভালো স্মার্ট সলিউশনের কথা চিন্তা করি তাহলে আমাজনের ইকো এবং স্নোজকে বেছে নিতে পারি। তারা অ্যালেক্সার প্রযুক্তি ব্যবহার করছে। স্নোজ আগামীতে গুগল সহকারীকে তাদের সঙ্গে যুক্ত করার কথা ভাবছে।
ভয়েস সহায়ক তিনটি ডিভাইস
বর্তমানে তিনটি ভয়েস কন্ট্রোল ডিভাইসের জনপ্রিয়তা রয়েছে। এর মধ্যে গুগল সহকারী প্রথম পছন্দের তালিকায় রয়েছে। প্রতিটি স্মার্ট স্পিকারের সাথে তারা বাসার অন্যান্য ডিভাইসগুলো কন্ট্রোল করে এবং হাজার হাজার ডিভাইসে এই প্রযুক্তি ব্যবহার করা হয়ে থাকে। সিরি’র নিয়ন্ত্রণ কিছুটা সীমাবদ্ধ। সিরি নিদৃষ্ট সংখ্যক স্মার্টফোনে ও হোম এন্টারপ্রাইজে এবং স্মার্ট স্পিকারে কাজ করে। অন্যদিকে অ্যালেক্সা ও গুগল সহকারী এই কাজগুলোতে আরো বেশি সক্ষম। আপনার বাসা বাড়িকে স্মার্ট করতে হলে অ্যাপলের হোম কিটস এর সহায়তা নিতে হবে। অন্যদিকে করতানারও কার্য ক্ষমতা সীমিত। এছাড়াও অনেক ছোট ছোট সহরাকারী রয়েছে। যেমন ধরুন- স্যামসাং গ্যালাক্সি স্মার্টফোনে বিক্সবি প্রযুক্তি রয়েছে। এটি একটি স্মার্টফোনের জন্য যথেষ্ট হলেও একটি বাড়ি নিয়ন্ত্রণের ক্ষেত্রে যথেষ্ট নয়।
ডিভাইসের বৈচিত্র
কক্ষ অনুযায়ী বিভিন্ন ধরনের স্মার্ট সহকারী ডিভাইসের প্রয়োজন রয়েছে। লিভিং রুমের জন্য আমাজনের বড় স্মার্ট স্পিকার বা স্নোজ শুধু সঙ্গীত বাজানোর কাজে ব্যবহার হতে পারে কিন্তু রান্না ঘরের জন্য এটি মোটেও মানানসই নয়। আমাজন ফায়ার টিভি ও টিভি প্রযুক্তিকে প্রকৃতপক্ষে অ্যালেক্সা প্রযুক্তির টেলিভিশন বলে। ট্রিবি থেকে আই অ্যালার্ম ঘড়ি পর্যন্ত প্রায় আধা ডজন স্পিকার নির্মাতা কোম্পানি অ্যালেক্সা প্রযুক্তিকে তাদের সঙ্গে নিয়েছে। গুগলের গুগল হোম মিনি, গুগল হোম এবং গুগল হোম ম্যাক্স এর মতো সনি, স্নোজ এবং জেবিএল এর তৃতীয় পক্ষের স্মার্ট স্পিকার রয়েছে। যদি আপনি স্মার্ট ডিভাইসের সঙ্গে একটি ডিসপ্লে চান তাহলে গুগলের স্মার্ট টেলিভিশন বেছে নিতে পারেন। এছাড়াও যেকোনো অ্যান্ড্রয়েড পরিচালিত টিভি থেকে এই সুবিধাটি ভোগ করতে পারেন। সিরি অ্যাপলের হোমপড এবং অ্যাপলের টিভি ডিভাইস, আইফোন, আইপ্যাডসহ ম্যাক কম্পিউটারে সমার্থন করে।
হোম ম্যানেজমেন্ট স্মার্ট স্পিকার
অ্যালেক্সা, গুগল সহকারী ও সিরি স্মার্ট হোম ডিভাইসগুলোকে নিয়ন্ত্রণ করতে সক্ষম। গুগল ও অ্যালেক্সা অ্যাপের মাধ্যমে আপনি আপনার বিভিন্ন কক্ষের এমনকি বাড়ির অনেক সুবিধা পেতে পারেন। যেমন ধরুন- আপনি সেট করে রাখতে পারেন যখন আপনি বাড়িটি ছেড়ে চলে যাবেন। আমাজন ইকো প্লাসে গিগবি রেডিও প্রযুক্তি সংযুক্ত করা হয়েছে। এই প্রযুক্তির মাধ্যমে এটি একটি স্মার্ট হাবে পরিনত হয়েছে। অন্যদিকে অ্যালেক্সা অ্যাপ্লিকেশনের মাধ্যমে স্মার্ট হাব তৈরির পাশাপাশি আপনার গৃহে থাকা ফিলিপস বাল্ব এর উজ্জলতা কমাতে বা বাড়াতে পারবেন। শুধু তাই নয়, এই অ্যাপের মাধ্যমে লাইট কন্ট্রোল ও গ্রুপ আকারে কমাতে বাড়াতে পারবেন।
মিউজিকে স্মার্ট স্পিকার
আপনি এই ধরনের স্পিকার দিয়ে সঙ্গীত বাজাতে চাচ্ছেন? আমাজন ইকো ও গুগল হোম উভয়েই অডিও ডিভাইস। উন্নতমানের শব্দ পেতে পারেন ভয়েস অ্যানাবেল স্নোজ, হারমান সনি অথবা জেবিএল স্পিকারের মাধ্যমে। গুগল হোম মিনি বা আমাজন ইকো ডট হতেপারে আপনার পছন্দের সস্তার একটি স্পিকার। ইকো ডটে একটি ৩.৫ মিলিমিটার অডিও আউটপুট রয়েছে।  প্রত্যেকটি স্মার্ট স্পিকার দ্বারা মোবাইল ফোনের মাধ্যমে সঙ্গীত বাজাতে পারবেন কিন্তু সবগুলো স্মার্ট স্পিকার থেকে ক্লাউড সেবা পাবেন না। অ্যালেক্সা ও গুগল সহকারী উভয়ই স্পটিফাইয়ের সঙ্গে সংযুক্ত।এছাড়াও পানডোরা, টিউনইন এবং আইহার্ট রেডিও থেকে ফ্রি সার্ভিস পেতে পারেন। অ্যালেক্সা স্পিকার এছাড়াও আজান মিউজিক সাপোর্ট করে। গুগলের সহকারী স্পিকার গুগল-প্লে ও ইউটিউব রেড মিউজিক ছাড়াও গুগল মিউজিক  লাইব্রেরিতে থাকা মিউজিক সমর্থন করে। করতানা স্পটিফাই প্রিমিয়াম, টিউনইন, আইহার্টরেডিও সমর্থন করলেও পানডোরা সমর্থন করে না। সিরি হোমপডে থাকা এবং অ্যাপল মিউজিক ও আইক্লাউড মিউজিক লাইব্রেবি থেকে গান বাজাতে সক্ষম। মাল্টি রুম অডিও পরিচালনার ক্ষেত্রে অ্যালেক্সা সেরা। আমাজনের ইএসপি’র বৈশিষ্ট হচ্ছে এগুলো শুধু নিকটবর্তী স্পিকারগুলোকে সাড়া দেয় এবং আপনাকে আপনার বাড়ির সীমানায় গান বাজাতে সাহায্য করে। গুগল হোম মাল্টি অডিও সমর্থন করে। আপনার রুমে যদি একাধিক অডিও সিস্টেম থেকে থাকে ও একাধিক গুগল অ্যাকাউন্ট থেকে থাকে তাহলে আপনি কোনটির সহায়তা নিবেন তা চিহ্নিত করে ‘ওকে গুগল’ বললেই তা চালু হয়ে যাবে। এটি আসলেই  চমত্কার বিষয়। সিরি মাল্টি রুম অডিও সমর্থন করে না তবে আগামীতে এই সুবিধা চালু হবে। এছাড়াও মোবাইলে কল করা, শিশুদের লেখাপড়ায় সহায়ক, অ্যালার্মসহ আরো অনেক সহযোগীতা পেতে পারেন স্মার্ট স্পিকার থেকে। সূত্র: পিসিএমএজি ডটকম

Comments

Check Also

নারী ও শিশু নির্যাতন প্রতিরোধে তাৎক্ষণিক সহায়তা পেতে মোবাইল অ্যাপ ‘জয়’

রবিবার বাংলাদেশ শিশু একাডেমির অডিটোরিয়ামে নারী ও শিশু নির্যাতন প্রতিরোধে তাৎক্ষণিক সহায়তা পেতে মোবাইল অ্যাপ …