Monday , 17 June 2019

হামলা করা হয় পরিকল্পিতভাবে: বাবুনগরী

ইজতেমার মাঠে নিরীহ মাদরাসা ছাত্র-শিক্ষকদের উপর বিতর্কিত সা’দ, ওয়াসিফ গং সন্ত্রাসীদের নগ্ন হামলা ও হত্যার প্রতিবাদে হাটহাজারীতে বিক্ষোভ সমাবেশ ও মিছিল অনুষ্ঠিত হয়েছে। সোমবার হাটহাজারী ডাকবাংলো চত্বরে ওলামা মাশায়েক ও সর্বস্তরের তৌহিদি জনতার ব্যানারে এ প্রতিবাদ সভা ও বিক্ষোভ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়।

সমাবেশে হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশের মহাসচিব, দারুল উলুম মুঈনুল ইসলাম হাটহাজারী মাদরাসার সহকারী পরিচালক শাইখুল হাদিস আল্লামা জুনায়েদ বাবুনগরী বলেন, ইজতেমার মাঠে পরিকল্পিতভাবে আলেম-উলামা ও মাদরাসার ছাত্রদের উপর জঘন্যতম হামলা করা হয়েছে। যে ইজতেমার ময়দানে দাওয়াতের কাজ চলতো সেখানে নিরীহ মাসুম ছাত্রদের রক্ত ঝরেছে।

এসময় তিনি প্রশাসনের কাছে ওই হামলার বাস্তবায়নকারী ওয়াসিফ, নাসিম গংদের শাস্তির দাবিও জানান। এবং সামাজিকভাবে সা’দের অনুসারীদের চিহ্নিত করে বয়কট করার আহবান জানান।

বাবুনগরী আরো বলেন, আমি হাইয়াতুল উলইয়ার মুরুব্বিদের বলছি হাইয়াতুল উলইয়াতে যেন কোনো দালালদের ঠাঁই না হয়। দালালদের মাধ্যমে ইসলামের ক্ষতি আগেও হয়েছে এখনও হচ্ছে।

এসময় বাবুনগরী দরবারী আলেমদের হাটহাজারীতে অবাঞ্ছিত ঘোষণা করেন। কোনো মাদরাসায় যেন দরবারী আলেমরা আসতে না পারেন সেজন্য সকল আলেমদের প্রতি তিনি আহ্বান জানান।

সমাবেশ থেকে আহত ও শহীদ ভাইদের মাগফিরাত কামনায় বিভিন্ন মাদরাসায় দোয়া মাহফিল কর্মসূচি ঘোষণা করা হয়।

সমাবেশে মুফতি মোহাম্মদ আলীর সভাপতিত্বে উপস্থিত ছিলেন, মুফতি জসিম উদ্দিন, মাওলানা জাফর আহমদ, মাওলানা মীর ইদ্রীস, মাওলানা কাজী সফিউল্লাহ্, মাওলানা জুহাইর, মাওলানা মাহমুদুল হুসাইন, মাওলানা ইসমাঈল খান, মুফতি শিহাবুদ্দিন, মাওলানা তাজুল ইসলাম, মাওলানা ইমরান সিকদার, মাওলানা জাহাঙ্গীর মেহেদী ও মাওলানা ইয়াসিন প্রমুখ।

বিক্ষোভ সমাবেশ শেষে হাটহাজারী ডাক বাংলো চত্বর থেকে একটি মিছিল বের হয়ে হাটহাজারী বাজারের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে পুনরায় ডাক বাংলোতে এসে শেষ হয়।

Comments

Check Also

ভাতা বাড়ছে মুক্তিযোদ্ধাদের দুই হাজার টাকা

২০১৯-২০২০ অর্থবছরের প্রস্তাবিত বাজেটে মুক্তিযোদ্ধাদের মাসিক ভাতা দুই হাজার টাকা বাড়ানো হয়েছে। বৃহস্পতিবার জাতীয় সংসদে …