Tuesday , 19 January 2021

২ শিক্ষার্থীর মরদেহ উদ্ধার রাজধানীতে

রাজধানীতে দুই শিক্ষার্থীর মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। এরমধ্যে উত্তরায় নিজের ঘরে খন্দকার ফাকিহা নুর (২২) নামে বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের এক ছাত্রীর ঝুলন্ত মরদেহ পাওয়া গেছে। আবার ধানমন্ডিতে বহুতল ভবনের ছাদ থেকে পড়ে আরনাজ আহমেদ (১৯) নামে এক শিক্ষার্থীর মৃত্যু হয়েছে।

শুক্রবার সকালে ঝুলন্ত মরদেহটি উদ্ধার করা হয়। অন্যদিকে বৃহস্পতিবার গভীর রাতে ছাদ থেকে পড়ে আরনাজ মারা যান। তবে তার মৃত্যু দুর্ঘটনা, না-কি আত্মহত্যা খতিয়ে দেখছে পুলিশ।

পুলিশ ও হাসপাতাল সূত্র জানায়, উত্তরা-৪ নম্বর সেক্টরের সাত নম্বর সড়কের ২৯ নম্বর বাসায় পরিবারের সঙ্গে থাকতেন ফাকিহা। তার বাবা খন্দকার আনোয়ার হোসেন ও মা রোজী বেগম। সকালে তারা মেয়েকে ডাকাডাকি করে সাড়া পাননি। পরে মেয়ের কক্ষে ঢুকে তার ঝুলন্ত দেহ দেখতে পান। দ্রুত তাকে উদ্ধার করে ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে নেওয়া হয়। সেখানে চিকিৎসক জানান, আগেই তার মৃত্যু হয়েছে।

ঢামেক হাসপাতাল পুলিশ ক্যাম্পের পরিদর্শক বাচ্চু মিয়া জানান, প্রাথমিকভাবে এ ঘটনাকে আত্মহত্যা বলে ধারণা করা হচ্ছে। ময়নাতদন্তের জন্য মরদেহ মর্গে রাখা হয়েছে। বিষয়টি সংশ্নিষ্ট থানাকে অবহিত করা হয়েছে।

তিনি আরও বলেন, ধানমন্ডির ১৫/এ নম্বর সড়কের ৬৯/১ নম্বর ভবনের ১০ তলার ছাদ থেকে পড়ে এক শিক্ষার্থীর মৃত্যু হয়েছে। বৃহস্পতিবার রাত ২টার পর এ ঘটনা ঘটে। পরে ভোরে পুলিশ মরদেহটি উদ্ধার করে মর্গে পাঠায়।

পরিবারের বরাত দিয়ে ধানমন্ডি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ইকরাম আলী মিয়া জানান, এ-লেভেল পাস করার পর ওয়াশিংটনের একটি বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি হয়েছিলেন আরনাজ। কিন্তু করোনার কারণে তিনি দেশেই অবস্থান করছিলেন। প্রাথমিক তদন্তে মনে হয়েছে, তিনি কোনো কারণে হতাশাগ্রস্ত ছিলেন। রাতে ফ্ল্যাট থেকে বেরিয়ে তিনি ছাদে যান। এর কিছু সময় পরই তার পড়ে যাওয়ার আওয়াজ পাওয়া যায়। ঘটনাস্থলেই তার মৃত্যু হয়। তার বাবা তাহমিদ আহমেদ আন্তর্জাতিক উদরাময় গবেষণা কেন্দ্র, বাংলাদেশের (আইসিডিডিআর,বি) একজন ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা। দুই বোনের মধ্যে আরনাজ বড় ছিলেন। ময়নাতদন্তে তার মৃত্যুর কারণ সম্পর্কে নিশ্চিত হওয়া যাবে।

Comments

Check Also

ট্রাকের ধাক্কায় গোপালগঞ্জে নিহত ২

গোপালগঞ্জে মাছ বোঝাই ট্রাক নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে রিকশাকে ধাক্কা দিলে যাত্রীসহ দুইজন নিহত হয়েছেন। সোমবার রাত …