Wednesday , 3 March 2021

গৃহবধূর মরদেহ মিলল তালাবদ্ধ ঘরে

বগুড়ার আদমদীঘিতে ফাহিমা বেগম (২৮) নামের এক গৃহবধূর মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। বুধবার বেলা ১১ টায় উপজেলার সান্তাহার ইয়ার্ড কলোনীর বাসা থেকে তার মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য হাসপাতালে পাঠিয়েছে পুলিশ।

এ ঘটনায় মৃতের ভাই ফারুক হোসেন বাদী হয়ে ওই গৃহবধূর স্বামী ছাইফুল ইসলামকে আসামি করে আদমদীঘি থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। ঘটনার পর থেকে ছাইফুল ইসলাম পলাতক রয়েছেন। অভিযুক্ত ছাইফুল ইসলাম (৩৪) আদমদীঘি উপজেলার সান্দিড়া গ্রামের আরমান হোসেনের ছেলে। ফাহিমা বেগম ওই উপজেলার সান্তাহার ইয়ার্ড কলোনী এলাকার বাসিন্দা আইনাল শেখের মেয়ে এবং ছাইফুল ইসলামের দ্বিতীয় স্ত্রী।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানান, দুই বছর আগে ফাহিমা বেগমের সাথে ছাইফুল ইসলামের বিযে হয়। তারা ইয়ার্ড কলোনীতে থাকতো। বিয়ের পর থেকেই ছাইফুল তার স্ত্রী ফাইমা বেগমকে শারীরিক ও মানসিকভাবে নির্যাতন করতেন। স্থানীয়দের ধারণা, সোমবার রাতের কোনও এক সময় ফাহিমাকে হত্যা করে ঘরে তালা লাগিয়ে তার স্বামী পালিয়ে যান। বুধবার সকালে ওই ঘর থেকে দুর্গন্ধ বের হওয়ায় প্রতিবেশীরা পুলিশে খবর দেয়। পরে পুলিশ এসে ওই দম্পতির শোওয়ার ঘর থেকে ফাহিমার মরদেহ উদ্ধার করে।

সান্তাহার ফাঁড়ির ইনচার্জ আনিছুর রহমান জানান, ওই গৃহবধূকে শ্বাসরোধে হত্যা করা হয়েছে বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে। তবে ময়নাতদন্তের রিপোর্ট পাওয়া গেলে ফাহিমার মৃত্যুর সঠিক কারণ জানা যাবে।

Comments

Check Also

ঠাকুরগাঁওয়ে টাকা ছিনতাই ভিক্ষুকের

ঠাকুরগাঁও পৌর এলাকার ১০ নম্বর ওয়ার্ডের গোবিন্দ নগর মুন্সির হাট নামক স্থানে এক ভিক্ষুকের টাকা …